grahan time

বছর অনেকটা শেষের দিকে। তবে এই বছর জ্যোতিষ শাত্রের জন্য অনেকটা বিশেষ একটি বছর কেননা এই বছর ৪ টি গ্রহণ আছে। যার মধ্যে ২ টি চন্দ্রগ্রহণ ও ২ টি সূর্যগ্রহণ। গ্রহণ সাধারণত পূর্ণগ্রাস,  আংশিক গ্রহণ ও ও বলয়গ্রাস হয়ে থাকে।  ১৯ নভেম্বরের গ্রহণ হবে মূলত আংশিক চন্দ্রগ্রহণ। তবে এই গ্রহণের সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য ব্যাপার হল এটা শতাব্দীর সবচেয়ে দীর্ঘতম চন্দ্রগ্রহণ।

সময়ের নিরিখে এটি প্রায় বিরলতম চন্দ্রগ্রহণ । পূর্ণিমার দিনে। খণ্ডগ্রাস চন্দ্রগ্রহণ। দেখা যাবে টানা তিন ঘণ্টা ২৮ মিনিট ২৩ সেকেন্ড। চন্দ্রের  রং হবে প্রায় রক্তের মতো লাল। তাই তার নাম ‘ব্লাড মুন’ বা ‘বিভার মুন’ও। এই শতাব্দীতে আর এতটা সময় ধরে খণ্ডগ্রাসের ব্লাড মুন দেখা সম্ভব হবে না। চলুন দেখে নি এই গ্রহণ কখন শুরু হবে এবং কোন সময় কোন পর্যায় থাকবে।

গ্রহণের সময়কাল

গ্রহণ সময় ভারত

পৃথিবীতে গ্রহণ আরম্ভ প্রভৃতি-গ্রহণ স্পর্শ (আরম্ভ) দিবা ১২ টা ৪৮ মিনিট থেকে

গ্রহণ মধ্য দিবা ২ টা ৩৩ মিনিট

গ্রহণ মোক্ষ (সমাপ্তি) দিবা ৪ টা ১৭ মিনিট

গ্রহণের স্থিতিকাল ৩ ঘণ্টা ২৮ মিনিট ২৩ সেকেন্ড

গ্রাসমান ০.৯৭৯

উপচ্ছায়া স্পর্শ (প্রবেশ) দিবা ১১ টা ৩০ মিনিট

উপচ্ছায়া মোক্ষম (ত্যাগ) সন্ধ্যা ৫ টা ৩৬ মিনিট

 

 

গ্রহণ সময় বাংলাদেশঃ

পৃথিবীতে গ্রহণ আরম্ভ প্রভৃতি-গ্রহণ স্পর্শ (আরম্ভ) দিবা ১ টা ১৮ মিনিট থেকে

গ্রহণ মধ্য দিবা ৩ টা ৩ মিনিট

গ্রহণ মোক্ষ (সমাপ্তি) দিবা ৪ টা ৪৭ মিনিট

গ্রহণের স্থিতিকাল ৩ ঘণ্টা ২৮ মিনিট ২৩ সেকেন্ড

গ্রাসমান ০.৯৭৯

উপচ্ছায়া স্পর্শ (প্রবেশ) দিবা ১২ টা

উপচ্ছায়া মোক্ষম (ত্যাগ) সন্ধ্যা ৬টা ৬ মিনিট

 

কোথায় দেখা যাবে এই গ্রহণ?

বাংলাদেশ ও ভারতে দৃশ্য এই গ্রহণ পশ্চিম আফ্রিকা, ইউরোপের পশ্চিমাংশে, উত্তর আমেরিকা, দক্ষিণ আমেরিকা, এশিয়া, অস্ট্রেলিয়া, আটলান্টিক মহাসাগর ও ভারত

মহাসাগরে দৃশ্য। চন্দ্রাস্তের সময় দক্ষিণ আমেরিকার কতিপয় অংশে ইউনাইটেড কিংডম ও আটলান্টিক মহাসাগেরের উত্তর ভাগে দৃশ্য হবে। চন্দ্রোদ্বয়ের সময়ে অস্ট্রেলিয়া, ইন্দোনেশিয়া, থাইল্যান্ড, চীন

ও রাশিয়ায় দৃশ্য হবে। উত্তর -পূর্ব ভারতের রাজ্যগুলিতে মূলত এই গ্রহণ দেখা যাবে। তার মধ্যে রয়েছে আসাম ও অরুণাচল প্রদেশ।

 

কিভাবে দেখবেন?

সূর্যগ্রহণের মতো চন্দ্রগ্রহণ দেখতে কোনও আলাদা সতর্কতার প্রয়োজন নেই। খালি চোখেই এই গ্রহণ দেখা যেতে পারে। তাতে চোখের ক্ষতির কোনও আশঙ্কা নেই। তবে টেলিস্কোপের সাহায্যে এই গ্রহণ দেখলে নিঃসন্দেহে গ্রহণের সৌন্দর্য আরও তীব্র ভাবে ধরা পড়বে।