মাঘমাসস্য শেষে বা প্রথমে ফাল্গুনস্য চ।
কৃষ্ণা চতুর্দশী সা তু শিবরাত্রি-চতুর্দশী।।

মাঘমাসের শেষে বা ফাল্গুন মাসের প্রথমে যে কৃষ্ণপক্ষের চতুর্দশী, তাই শিবরাত্রি। বিশ্বাস, শিবরাত্রিতে যথাযথ নিয়ম মেনে বিল্বপত্র সহযোগে পুজো করলে ভগবান তুষ্ট হন।

পূজা পদ্ধতি অনুযায়ী, রাত্রে চার প্রহরে চারবার পুজো করতে হয় শিবলিঙ্গে। মতান্তরে, চার প্রহরে চারবার পুজো করতে কেউ অক্ষম হলে প্রথম প্রহরেই পরপর চারবার শিবপূজা করে নেওয়া যেতে পারে। পাষাণ নির্মিত অথবা পার্থিব শিবলিঙ্গ প্রতিবারে গড়ে নিতে হবে।

শিবরাত্রি যাঁরা পালন করছেন, তাঁরা ভক্তিভরে, শুদ্ধচিত্তে পূজার জন্য প্রস্তুত হবেন। প্রত্যেক প্রহরে স্নান ও অর্ঘ্যদানের সময় আলাদা আলাদা
মন্ত্র পড়তে হবে।

  • প্রথম প্রহরে দুধ দিয়ে স্নানের নিয়ম রয়েছে। মন্ত্র – ইদং স্নানীয়দুগ্ধং ওঁ হৌঁ ঈশানায় নমঃ
  • অর্ঘ্যদান মন্ত্র– ওঁ শিবরাত্রিব্রতং দেব পূজাজপরায়ণঃ। করোমি বিধিবদ্দত্তং গৃহাণার্ঘ্যং মহেশ্বর।। – নম শিবায় নমঃ মন্ত্রে অর্ঘ্য দিতে হবে।
  • দ্বিতীয় প্রহরে দধি দিয়ে স্নানের নিয়ম মন্ত্র – ইদং স্নানীয়ং দধি ওঁ হৌঁ অঘোরায় নমঃ
  • অর্ঘ্যদান মন্ত্র– ওঁ নমঃ শিবায় শান্তায় সর্ব্বপাপহরায় চ। শিবরাত্রৌ দদামর্ঘ্যং প্রসীদ উময়া সহ। – নম শিবায় নমঃ মন্ত্রে অর্ঘ্য দিতে হবে।
  • তৃতীয় প্রহরে ঘি দিয়ে স্নানের নিয়ম মন্ত্র – ইদং স্নানীয়ং ঘৃতং ওঁ হৌঁ বামদেবায় নমঃ
  • অর্ঘ্যদান মন্ত্র– ওঁ দুঃখদারিদ্র্য-শোকেন দগ্ধোহহং পার্বতীশ্বর। শিবরাত্রৌ দদামর্ঘ্যং, উমাকান্ত গৃহাণ মে।।
  • চতুর্থ প্রহরে মধু দিয়ে স্নানের নিয়ম মন্ত্র – ইদং স্নানীয়ং মধু হৌঁ সদ্যোজাতায় নম
  • অর্ঘ্যদান মন্ত্র– ওঁ ময়া কৃতান্যনেকানি পাপানি হর শঙ্কর। শিবরাত্রৌ দদামর্ঘ্যমুমাকান্ত গৃহাণ মে।

চারপ্রহরের পুজো শেষ করে সকালে হাতজোড় করে নীচের মন্ত্র পাঠ করতে হয়।

ওঁ অবিঘ্নেন ব্রতং দেব ত্বৎপ্রসাদাৎ সমর্পিতম।
ক্ষমস্ব জগতাং নাথ ত্রৈলোক্যাধিপতে হর।।
যন্মায়াদ্য় কৃতং পুণ্যং তদ্রুদস্য নিবেদিতম।
তৎ প্রসাদান্ময়া দেব ব্রতমদ্য সমাপিতম।
প্রসন্ন ভবো মে শ্রীমন মদ্ভুতি প্রতিপাদ্যতাম।
ত্বদালোকন-মাত্রেণ পবিত্রোহস্মি ন সংশয়ঃ।।

শিবরাত্রি ব্রতকথা শুনতে হয় পূজা শেষে। রয়েছে আরও নানাবিধ নিয়ম। করতে হয় শিবরাত্রি পারণও।

সংগৃহিত