প্রতিদিন গীতা পাঠ করুন মন পবিত্র রাখুন। ব্রহ্মা কহিলেন,

১. প্রথম অধ্যায় পাঠ করিলে লোকের মন পবিত্র হয়।

২. দ্বিতীয় অধ্যায় পাঠে নির্মলতা লাভ করে।

৩. তৃতীয় অধ্যায় পাঠে সর্বপাপ দূর হয়।

৪. চতুর্থ অধ্যায় পাঠ করিলে ব্রহ্মহত্যা ও স্ত্রীহত্যাজনিত পাপ তৎক্ষণাৎ দূর হইয়া থাকে।

৫. পঞ্চম অধ্যায় পাঠ করিলে চৌর্যমহাপাপ দূর হয়।

৬. ষষ্ঠ অধ্যায় পাঠে মন্দ ভাগ্য নাশ হয়।

৭. সপ্তম অধ্যায় পাঠে বুদ্ধি নির্মলতা লাভ করে।

৮. অষ্টম অধ্যায় পাঠে অখাদ্য ও অপেয়জাত সকল প্রকার পাপ দূর হয়।

৯. নবম অধ্যায় পাঠে পৃথিবী দানের মত সম্পুর্ন লাভ হয়।

১০. দশম অধ্যায় পাঠে সর্বপাপ বিনষ্ট হইয়া শ্রেষ্ঠ জ্ঞান জন্মে।

১১. একাদশ অধ্যায় পাঠে ব্রহ্মজ্ঞান লাভ হয়ে মুক্তি লাভ হয়।

১২. দ্বাদশ অধ্যায় পাঠে ভগবান বিশুদ্ধ ভক্তি জন্মে।

১৩. ত্রয়োদশ অধ্যায় পাঠে জ্ঞানচক্ষু বিকাশ তাহার শক্তি লাভ হয়।

১৪. চতুর্দশ অধ্যায় পাঠে অশ্বমেদি যজ্ঞের যে মহাফল তা লাভ হয়।

১৫. পঞ্চদশ অধ্যায় পাঠে নির্মল জ্ঞান লাভ করিয়া যোগী হওয়া যায়।

১৬. ষোড়শ অধ্যায় পাঠে মানব সংসার বন্ধন হইতে মুক্তি লাভ করে।

১৭. সপ্তদশ অধ্যায় পাঠে ভক্তজনের রাজপেয় নামক যজ্ঞের ফল লাভ করে।

১৮. অষ্টাদশ অধ্যায় পাঠে জ্ঞানরূপ অগ্নি দ্বারা পাপ দূর হয়।।