বছরের শেষ চন্দ্রগ্রহণ হতে চলেছে ৩০ নভেম্বর, সোমবার। চন্দ্রগ্রহণের সময় পৃথিবী, সূর্য ও চাঁদের মাঝখানে এসে পড়ে। এই সময় পৃথিবীর ছায়ায় চাঁদ ঢাকা পড়ে যায়। ৩০ নভেম্বর উপচ্ছায়া চন্দ্রগ্রহণ হবে। এই চন্দ্রগ্রহণটি বৃষ রাশি এবং রোহিনী নক্ষত্রমণ্ডলে হতে চলেছে। রোহিনী নক্ষত্রের প্রভু হলেন চাঁদ, এই দিনটি বৃষ রাশিতে রূপান্তরিত হবে। জ্যোতিষশাস্ত্র মতে, এই চন্দ্রগ্রহণের কারণে ১২টি রাশির উপরই প্রভাব পড়বে, তবে মিথুন রাশি, কন্যা ও ধনু রাশির উপর বেশি মাত্রায় প্রভাব ফেলবে।

chandragrahan

মিথুন রাশি: এই রাশির জাতক-জাতিকাদের ধৈর্য ধরতে হবে। এই সময়ে পরিস্থিতির চাপে অতিরিক্ত মানসিক চাপ তৈরি হতে পারে। ধৈর্য হারাবেন না। আপনার কাজে কোনও বাধা আসতে পারে। মেজাজ হারাবেন না এবং খারাপ ভাষায় কথা বলবেন না, অন্যথায় বিষয়টি আরও খারাপ হতে পারে। উচ্চস্বরে কথা বলার কারণে লোকসান হতে পারে। চেষ্টা করবেন সকলের সঙ্গে ভালো ভাবে কথা বলার। পরিবারের কোনও সদস্যের স্বাস্থ্য খারাপ হওয়ার কারণে আপনি চিন্তিত থাকবেন। হনুমানজির উপাসনা করা আপনার পক্ষে শুভ হবে।

কন্যা রাশি: বছরের শেষ চন্দ্রগ্রহণ অর্থাৎ ৩০ নভেম্বরের চন্দ্রগ্রহণ কন্যা রাশির জাতক-জাতিকাদের জন্য খুব একটা বিশেষ হবে না। চাকুরিজীবীদের সাবধান হওয়ার পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে। আপনার ক্রোধ নিয়ন্ত্রণ করা উচিত, অন্যথায় আপনার ক্ষতি হতে পারে। প্রচুর সমস্যার সম্মুখীন হতে পারেন। যারা চাকরির সঙ্গে যুক্ত এবং দুর্দান্ত দায়িত্ব নিচ্ছেন তারা কিছু সমস্যার মুখোমুখি হতে পারেন। এই সময়ে আপনার ব্যয় বাড়তে পারে। এই সময়ে ভ্রমণও হতে পারে। বাড়তি কথা বলা থেকে বিরত থাকুন। গণেশ পূজা করা আপনার পক্ষে উপকারি হবে।

ধনু রাশি: ধনু রাশির জাতক-জাতিকাদের নিজের স্বাস্থ্যের যত্ন নেওয়া দরকার। প্রতিদিনের রুটিন বদলাতে হতে পারে। আপনি স্বাস্থ্য নিয়ে কোনও প্রকারের অবহেলা করা এড়িয়ে চলুন। লেনদেনের ক্ষেত্রে সাবধানতা অবলম্বন করুন। অর্থ সম্পর্কিত লেনদেনে আপনার সতর্ক থাকা অত্যন্ত প্রয়োজনীয়। দ্রুত কারও উপর নির্ভর করা আপনার পক্ষে ক্ষতিকর প্রমাণ হতে পারে। সন্তানের পক্ষ থেকেও চিন্তা সম্ভব। তাদের পড়াশোনায় নজর রাখুন। মানসিক শান্তি পেতে আপনার ভগবান বিষ্ণুর পূজা করা উচিত।