আর চাঁদের আড়াল থেকে সূর্যের যে অংশটি দেখা যাবে তাকে অনেকটা আগুনের আংটির মতো দেখতে লাগবে। যেহেতু এই গ্রহণ ভারতর্ষ হতে দৃশ্যমান সেহেতু সকলেরই এই গ্রহণের শুভাশুভ বিচার বিবেচনা অনুসারে চলা উচিৎ। এ শুভাশুভ বিচার কার্য একএক রাশিতে একএক প্রকারের।

যাদের জন্য এই গ্রহণ শুভঃ

• যাদের এই গ্রহণ দর্শনে শুভ বা যাদের দেখলে এই গ্রহণ উপকারে আসে তারা এই গ্রহণ উপভোগ করলে ভাল।
• এই গ্রহণ মেষ, বৃষ, সিংহ, মকর ও কুম্ভরাশির জাতক জাতিকাদের দর্শনে শুভ।
• গ্রহণ যাদের দেখা শুভ তারা যদি দেখেন তাহলে অক্ষয় পূণ্য লাভ হয়।

যাদের জন্য এ গ্রহণ অশুভঃ

মেষ, বৃষ, সিংহ, মকর ও কুম্ভরাশির জাতক জাতিকা হওয়া সত্ত্বেও হলেও জন্মতারা জন্য মৃগশিরা নক্ষত্র যুক্ত বৃষরাশির ধনিষ্ঠা নক্ষত্র যুক্ত মকর ও কুম্ভরাশির দর্শনে অশুভ।
দিবা ভারতীয় সময় ১.১৯ ও বাংলাদেশ সময় ১.৪৯ মিনিট গতে জন্মতারা জন্য শতভিষা নক্ষত্র যুক্ত কুম্ভ রাশির দর্শনে অশুভ।

যারা এই গ্রহণ দর্শন করবেন তাদের জন্য করনীয়ঃ

• আপনি যদি গ্রহণ দর্শন করেন তাহলে আপনাকে অবশ্যই স্নান করে শুদ্ধ হতে হবে।
• যদি হঠাৎ দর্শন করে ফেলেন বা দৈবাৎ দর্শনে বিপ্রকে স্বর্ণদান কর্ত্তব্য।
• তন্ত্রোক্ত মন্ত্র পুরশ্চরণকারীগণের পক্ষে এই রাশ্যাদি বিচার অনাবশ্যক।
• বৈধ দর্শন কারী মাত্রেই গ্রহণ নিমিত্তিক স্নান অবশ্যই কর্ত্তব্য।

এ সংক্রান্ত একটি শ্লোক নিম্নে দেওয়া হল।

সংক্রমে গ্রহণে চৈব ন স্নায়াদ্ যস্তু মানবঃ।
সপ্তজন্মস্বসৌ কুষ্ঠীস্যাদ্ দঃখ ভাগী চ সর্ব্বদা।।

• মুক্তি স্নান মন্ত্রস্তবঃ

উত্তিষ্ঠগম্যতাং রাহো ত্যজ্যতাং সূর্য্যসঙ্গমঃ।
কর্ম্মচাণ্ডালযোগোত্থং কুরু পাপক্ষয়ং মম।।

গ্রহণকালে যা যা করা যাবেঃ

• গ্রহণকালে পার্ব্বণশ্রাদ্ধ করতে হবে।
• যে ব্যক্তি গ্রহণকালে যথাবিধানে শ্রাদ্ধ করবে তার ব্রাহ্মণহস্তে পৃথিবীদানের ফল হয়।
• এই গ্রহণ সময়ে যদি পরিবারে কোন শিশুর জন্মগ্রহণ করে তাহলে স্নান অবশ্যই কর্তব্য।
• যদি কোন ব্যক্তি স্বর্গলাভ করেন তাহলেও স্নানে শুদ্ধ হবে পরিবার।
• এই গ্রহণ সময়ে কোনরূপ দান করলে তা লক্ষগুণ বেশি ফল হয়।
• যদি এই গ্রহণ সময়ে রক্তপাত সৃষ্টি হয় তাহলে দান করা কর্ত্তব্য।
• গ্রহণকালে দীক্ষা গ্রহনকরা যাবে।

গ্রহণকালে যা যা করা যাবেনাঃ

• গ্রহণকালে পার্ব্বণশ্রাদ্ধ না করলে পাপ জন্মায়।
• এই গ্রহণ সময়ে যদি পরিবারে কোন শিশুর জন্মগ্রহণ করে তাহলে এ উপলক্ষ্যে দান করা যাবে না।
• যদি কোন ব্যক্তি স্বর্গলাভ করেন তাহলে এ উপলক্ষ্যে শ্রাদ্ধ করা যাবে না।
• গ্রহণকালে বিশেষ যাত্রা নিষিদ্ধ।

অত্র গঙ্গাস্নানে সংকল্পবাক্য, যথাঃ

বিষ্ণুরোম তৎসদ্যোদ্য আষাঢ়ে মাসি মিথুন রাশিস্থে
ভাস্করে কৃষ্ণপক্ষে অমাবস্যান্তিথৌ / শুক্লপক্ষে প্রতিপদিতিথৌ
রাহুগ্রস্তে দিবাকরে অমুক গোত্রঃ শ্রীঅমুক দেবশর্ম্মা (শুদ্রপক্ষে শ্রী অমুক দাস, স্ত্রী পক্ষে অমুক গোত্রা শ্রী অমুকী দেবী বা দাসী)
কোটিগুণ গঙ্গাস্নান জন্য ফল সমফল প্রাপ্তিকামঃ (শ্রীবিষ্ণু প্রীতিকামঃ বা স্ত্রীপক্ষে কামা)
অস্যাং গঙ্গায়াং সানমহং করিষ্যে।

গঙ্গাভিন্ন অন্যকোথাও স্নান করলে “অস্যাং গঙ্গায়াং” এর পরিবর্তে পুকুর জল হলে “অস্যাং পুষ্করিণ্যাং” এবং নদী জলে “অস্যাং নদ্যাং” বলতে হবে।

ছবিঃ ইন্টারনেট (গুগল)